1. bd35be9017d4c9453cd35cbbf143797e : admi2017 :
  2. editor@ajkergopalganj.com : Ajker Gopalganj : Ajker Gopalganj
শনিবার, ২২ জানুয়ারী ২০২২, ০৬:১৫ অপরাহ্ন

জনপ্রশাসন পদক পেলেন গোপালঞ্জের জেলা প্রশাসক শাহিদা সুলতানা

  • আপডেট টাইম : বুধবার, ২৮ জুলাই, ২০২১
  • ১০৩ বার পঠিত

আজকের গোপালগঞ্জ প্রতিবেদক
গোপালগঞ্জের জেলা প্রশাসক শাহিদা সুলতানা পেলেন জাতীয় পর্যায়ে জনপ্রশাসন পদক। জনসেবা প্রদানে উল্লেখযোগ্য ও প্রশংসনীয় অবদানের জন্য তাকে এই পদক দেয়া হয়েছে।
মঙ্গলবার সকালে ঢাকার ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে জাতীয় পাবলিক সার্ভিস দিবস উদযাপন ও জনপ্রশাসন পদক ২০২০ ও ২০২১ প্রদান উপলক্ষে আয়েজিত এক অনুষ্টানে তার হাতে এই পদক তুলে দেয়া হয়।
জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের আয়োজনে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে ভার্চুয়ালি যুক্ত ছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক আনুষ্ঠানিকভাবে জেলা প্রশাসকের হাতে এ পদক তুলে দেন। এ সময় জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন, সিনিয়র সচিব কেএম আলী আজম ও ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
গোপালগঞ্জের জেলা প্রশাসক শাহিদা সুলতানাকে জনপ্রশাসন পদক দেয়ায় সরকার প্রধানকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন গোপালগঞ্জের নানা শ্রেণি পেশার মানুষ । সেই সঙ্গে অভিনন্দন জানিয়েছেন জেলা প্রশাসককেও।
গোপালগঞ্জের সেবামুলক সংগঠন বিল্ড ফর নেশনের সাধারন সম্পাদক হাবিবুর রহমান বলেন, ‘শাহিদা সুলতানা গোপালগঞ্জে জেলা প্রশাসক হয়ে আসার পর থেকে বিভিন্ন ব্যাতিক্রমী ও উন্নয়নমুলক কাজ করেছেন এবং সঠিকভাবে দেখভাল করছেন। ব্যাতিক্রমী উদ্যোগ পরিবার পরিচিতি কার্ড তৈরি করে দেশের মধ্যে এক নতুন দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। এই কার্ডের মাধ্যমে করোনাকালীন সময়ে দরিদ্রদের মাঝে সরকারের বিভিন্ন সাহায্য সহযোগিতা সঠিকভাবে বণ্টন করে দিয়েছেন। বিভিন্ন সংগঠন ও ব্যক্তিকে উদ্বুদ্ধ করে করোনা আক্রান্ত ও শ্রমজীবী মানুষের পাশে দাঁড়াতে আহ্বান জানিয়েছেন। আমি তার এই গঠনমূলক ও ব্যাতিক্রমী কাজকে সাধুবাদ জানাই এবং তাকে অভিনন্দন জানাই।
জেলা প্রশাসক শাহিদা সুলতানা বলেন, ‘প্রথমে আমি ধন্যবাদ জানাচ্ছি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে। তিনি আমাকে জাতীয় পর্যায়ে জনপ্রশাসন পদক দিয়েছেন।
তিনি আরও বলেন, সরকারি সাহায্য-সহযোগিতা সঠিকভাবে বণ্টন করতে প্রথমে পরিবারের ধরণ নির্বাচন করা জরুরি। তাই আমার নিজস্ব ধ্যান-ধারণা থেকে পরিবার পরিচিতি কার্ড করার সিধান্ত নেই। এই কার্ডের মাধ্যমে কোনো পরিবারের আয় কতো তা জানা যাবে এবং সেই অনুযায়ী পরিবারের অবস্থান বা ক্যাটাগরিতে ভাগ করা হয়েছে।
‘বেশি দরিদ্র যেসব পরিবার রয়েছে তাদের প্রথমে ত্রাণ বা প্রধানমন্ত্রীর দেয়া সাহায্য সময় মতো পৌঁছে দেয়া হয়েছে। এই কার্যক্রম চলমান রয়েছে। চলতি বছরের মধ্যেই অন্যসব পরিবারের পরিচিতি কার্ড শেষ করতে কাজ করা হচ্ছে।’
উল্লেখ্য, ২০১৯ সালের ২৩ জুন গোপালগঞ্জে জেলা প্রশাসক হিসেবে যোগদান করেন শাহিদা সুলতানা। ২০২০ সালের ১ এপ্রিল পরিবার পরিচিতি কার্ড তৈরি কার্যক্রম শুরু করেন। মাত্র ২০ দিনের ব্যবধানে ২০ এপ্রিল ৩ লাখ ৯ হাজার মানুষের হাতে তা পৌঁছে দেয়া হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
আজকের গোপালগঞ্জ বিল্ড ফর নেশনের একটি উদ্যোগ
Theme Developed BY ThemesBazar.Com