1. bd35be9017d4c9453cd35cbbf143797e : admi2017 :
  2. editor@ajkergopalganj.com : Ajker Gopalganj : Ajker Gopalganj
শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৬:৩৩ পূর্বাহ্ন

গোপালগঞ্জে গণটিকা কার্যক্রমে ব্যাপক সাড়া

  • আপডেট টাইম : শনিবার, ৭ আগস্ট, ২০২১
  • ১০৯ বার পঠিত

আজকের গোপালগঞ্জ প্রতিবেদক
গোপালগঞ্জে গণটিকা কার্যক্রমে ব্যাপক সাড়া পড়েছে । সকাল থেকে প্রাকৃতিক দুর্যোগ উপেক্ষা করে মানুষ টিকা কেন্দ্রে উৎসব মুখর পরিবেশে টিকা নিয়েছেন। শনিবার সকাল ৯ টায় গোপালগঞ্জে গণটিকা কার্যক্রম শুরু হয়। চলে বিকাল ৩টা পর্য়ন্ত। সকাল থেকেই প্রতিটি কেন্দ্র টিকা প্রহীতার ভিড় লক্ষ্যকরা গেছে। জেলা প্রশাসন, উপজেলা প্রশাসন, স্বাস্থ্য বিভাগ, টিকা সংশ্লিষ্ট দপ্তরের পদস্থ কর্মকর্তা ও জন প্রতিনিধিরা সরাদিন কেন্দ্রে ঘুরে-ঘুরে টিকাদান কার্যক্রম তদারকি করেছেন।
দুপুর ১টার মধ্যেই অধিকাংশ কেন্দ্রের টিকা শেষ হয়ে যায়। অনেকে টিকা না পেয়ে বাড়ি ফিরেছেন।
গোপালগঞ্জের সিভিল সার্জন ডা. সুজাত আহমেদ জানান, জেলার ৫ উপজেলার ৬৭ টি ইউনিয়ন ও ৪টি পৌর সভায় ৭৮টি কেন্দ্রের ২২৫টি বুথ থেকে ৪৩ হাজার ২ শ’ মানুষকে করোনা টিকা দেয়ার লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়। লক্ষ্যমাত্রা অর্জণে ৪৩২ টিকাদান কর্মী ও ৬৮৪ স্বোচ্ছাসেবককে প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে। আমাদের হাতে ১ লাখ ২০ হাজার ডোজ টিকা মজুদ রয়েছে। গণটিকা কার্যক্রমের প্রথম দিনে আমরা মানুষের মধ্যে ব্যাপক সাড়া দেখতে পেয়েছি।
গোপালগঞ্জে পৌরসভার ৮ নং ওয়ার্ড টিকাদান কেন্দ্রের প্যারামেডিকস বদরুল আলম বলেন, সকাল ৯ টা থেকে আমরা টিকা প্রয়োগ শুরু করি । বৃষ্টি উপেক্ষা করে আমাদের কেন্দ্রে টিকা নিতে অতিরিক্ত মানুষ উপস্থিত হয়। আমরা বয়স্ক নারী-পুরুষ ও প্রতিবন্ধীদের অগ্রাধিকার ভিত্তিতে টিকা প্রয়োগ করি। দুপুর ২ টার মধ্যেই আমাদের কেন্দ্রের আড়াই শ’ টিকা প্রয়োগ শেষ হয়ে যায়। টিকা না পেয়ে অনেকেই ফিরে গেছেন।
গোপালগঞ্জে পৌরসভার ৫ নং ওয়ার্ড টিকাদান কেন্দ্রের প্যারামেডিকস মোঃ নাসির উদ্দিন মোল্লা বলেন, দুপুর ১ টার মধ্যেই আমাদের ২ শ’ টিকা শেষ হয়ে যায়।
৫নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর জসিমউদ্দিন খান খসরু বলেন, টিকা না পেয়ে অনেকেই ৫নং ওয়ার্ড কেন্দ্র থেকে ফিরে গেছেন। তাই গণটিকা দানে প্রতিটি কেন্দ্রেই টিকা বাড়াতে হবে। করোনা নিয়ে মানুষের মধ্যে সচেতনতা সৃষ্টি হয়েছে। তাই গণটিকা কার্যক্রমে মানুষের মধ্যে ব্যাপক সাড়া পড়েছে।
টিকা গ্রহীতা আসমা বেগম, মোঃ আনোয়ার পারভেজ, রিয়াদ মোল্লা বলেন, আগে জেলা ও উপজেলা সদরের হাসপাতালে গিয়ে টিকা নিতে হত। এখন সরকার ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে টিকাদানের ব্যবস্থা করেছে। এতে আমরা উপকৃত হয়েছি। টিকা নেয়ার সময় কোন ব্যাথা লাগেনি। টিকা নিলে করোনা থেকে রক্ষা পাওয়া যায়। তাই সকলকে টিকা নিতে আমরা অনুরোধ করছি।
বুথ ফেরত আয়েশা বেগম বলেন, বাড়ির কাজ সেরে কেন্দ্র দেরিতে গেছি। তাই আমি টিকা পাইনি। আমর মত আরো অনেকে টিকা পায়নি। তাই দ্রুত আমাদের টিকা দেয়ার জন্য সরকারের প্রতি অনুরোধ করছি।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
আজকের গোপালগঞ্জ বিল্ড ফর নেশনের একটি উদ্যোগ
Theme Developed BY ThemesBazar.Com